সাদুল্লাপুরের কামারপাড়ায় বাঁশ কাটাকে কেন্দ্র করে মারপিট, হামলায় আহত ৪ : থানায় এজাহার

জিল্লুর রহমান জীমজিল্লুর রহমান জীম
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৪:৫২ PM, ৩০ এপ্রিল ২০২১

শাহজাহান সিরাজ :
গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলার মধ্য হাট বামুনী কামারপাড়া এলাকায় পরসম্পদলোভী ব্যক্তি কর্তৃক অন্যায়ভাবে বাঁশ কর্তন এবং তাতে বাঁধা দেয়ায় হামলা, মারপিট, শ্লীলতাহানী এবং স্বর্ণেও চেইন ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় সাদুল্লাপুর থানায় এজাহার দায়ের করেছেন যোগেন্দ্র চন্দ্র দেব এর পুত্র শ্রী স্বপন কুমার দেব।
এজাহার সূত্রে জানা গেছে, একই এলাকার মৃত. পূর্ণ চন্দ্র দেব এর পুত্র প্রতাব চন্দ্র দেব ওরফে রবি (৫৫), পরিমল চন্দ্র দেব (৫০), প্রতাব চন্দ্র দেব ওরফে রবির পুত্র প্রণয় কুমার দেব (২০), প্রণয়ের মা জয়া রানী দেব (৫০), ও পরিমল চন্দ্র দেব এর স্ত্রী প্রতিমা রানী দেব গংরা বাদীর অবর্তমানে তাদের বাঁশের ঝাড় থেকে ১০ থেকে ১৫টি বড় বাঁশ কেটে নেয় গত ২৭ এপ্রিল। এ ঘটনার পরের দিন ২৮ এপ্রিল সকাল ১১টায় উল্লিখিত আসামীরা হাতে লাঠি সোটা ও দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে বাদীর বাড়ীতে অন্যায়ভাবে আবারো প্রবেশ করে অকথ্য ভাষায় গালাগাল শুরু করে। বাদী তাদেরকে প্রতি উত্তর করায় আসামীরা বাদীর বড় ভাই ও বাবা যোগেশ চন্দ্র দেবকে মারপিট করে মাটিতে ফেলে দেয়। এক পর্যায়ে তার মা এগিয়ে গেলে তার পরনের কাপড় ধরে টানা হেচড়া করে শ্লীলতাহানী ঘটায় এবং তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয় আসামীরা। এ সময় আসামীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে বাদী ও তার বড়ভাই গুরুত্বর হাড়কাটা রক্তাক্ত আহত হন। আসামীরা বাদীর বৃদ্ধ পিতা-মাতাকেও অমাণবিকভাবে মারপিট করে গুরুত্বর আহত করেন। বর্তমানে তারা সাদুল্লাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এ ঘটনায় স্বপন চন্দ্র দেব বাদী হয়ে উল্লিখিত ৫জনকে আসামী করে সাদুল্লাপুর থানায় এজাহার দায়ের করেছেন।
এ বিষয়ে সাদুল্লাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মাসুদ রানা বলেন, আমরা এজাহার পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

সুত্র-গাইবান্ধা টিভি

আপনার মতামত লিখুন :